জার্মান বাবা-বাঙালি মা, ছোটবেলায় বাবা-মা বিচ্ছেদ ও ফের বিয়ে আঘাত করেছিল দিয়াকে!


বলিউডে সফল কেরিয়ার, তবে ব্যক্তিগত জীবনে ছোট থেকেই নানান টালবাহানার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে দিয়া মির্জাকে। বেশকিছুদিন আগে এক সাক্ষৎকারে ব্যক্তিগত জীবনের নানান কথা খোলসা করেন দিয়া।

দিয়ার জন্মদাতা বাবা একজন জার্মান, নাম ফ্র্যাঙ্ক হ্যান্ডরিচ, আর মা হলেন বাঙালি, নাম দীপা।

দিয়ার বয়স যখন মাত্র ৫ বছর, তখনই তাঁর বাবা-মায়ের বিবাহ-বিচ্ছেদ হয়ে যায়। পরবর্তীকালে দিয়ার মা হায়দরাবাদের বাসিন্দা আহমেদ মির্জাকে বিয়ে করেন।

দিয়ার কথায়, তিনি তাঁর বাবাকে ভীষণ ভালোবাসতেন এবং বাবা ফ্র্যাঙ্ক হ্যান্ডরিচ তাঁর ভীষণই কাছের মানুষ ছিলেন। বলা ভালো ছোট্ট দিয়ার কাছে তিনি ছিলেন নায়ক। (ছবিতে ছোট্ট দিয়া)

নিজেদের বিচ্ছেদের কথা কীভাবে তাঁর বাবা-মা তাঁকে বলেছিলেন? এ প্রশ্নের উত্তরে দিয়া বলেন, ”হ্যাঁ, এটাও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, একজন শিশুর কাছে, তাঁর বাবা-মা তাঁর আদর্শ। আর আমার কাছেও তাই। ”

দিয়ার কথায়, ”আমার বাবা-মাকেও আমি আমর সঙ্গে বিশেষ ঝগড়া করতে দেখিনি। বড়জোর দু-একবার দেখেছি, তাই বাবা-মায়ের বিচ্ছেদের খবরে আমি আঘাত পেয়েছিলাম।” (ছবিতে কিশোরী দিয়া)


Best bangla site

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *