পিরোজপুরে ৩ শিশুকে গাছে বেঁধে অমানুষিক নির্যাতন, বাবা-ছেলে গ্রেপ্তার

পিরোজপুর প্রতিনিধি :: হতদরিদ্র পরিবারের তিন সন্তান স্বাধীন (১২) তাওহিদ (১১) ও নাইম (১২) একটি মুরগির ফার্মে কাজ করে। শনিবার সকালে কাজ করার সময় তাদের ক্ষুধা লাগলে প্রতিবেশী জব্বার মিয়ার মাল্টা বাগানে ঢুকে কয়েকটি মাল্টা পেড়েছিল। এ অপরাধে শিশু তিনটিকে ধরে গাছের সাথে বেঁধে জুতো দিয়ে পিটিয়ে অমানুষিক নির্যাতন করে বাগান মালিক ও তার ছেলে। পরে ওই শিশুদের অভিভাবকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের ছাড়িয়ে নেন।

শনিবার পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি এলাকার বলদিয়া ইউনিয়নের চামি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রাতে স্বরুপকাঠী থানায় মামলার পুলিশ দুইজনকে গ্রেপ্তার করে বলে ওসি মো. কামরুজ্জামান তালুকদার জানিয়েছেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, শনিবার সকালে ওই তিন শিশু একই এলাকার আব্দুল জব্বারের মাল্টা বাগানে ঢুকে মাল্টা পেড়ে নিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় বাগানের মালিক জব্বার ও তার ছেলে হাসান ওই শিশুদের ধরে দড়ি দিয়ে একই সাথে একটি গাছের সাথে বেঁধে জুতো দিয়ে পিটায়। পরে তাদের অভিবারকরা সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের ছাড়িয়ে আনেন। নির্যাতনে ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়।
পুলিশ খরব পেয়ে ঘটনার সাখে জড়িত বাগান মালিক জব্বার ও তার ছেলে হাসানকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় রাতে নির্যাতিত শিশু তাওহিদের পিতা আলাউদ্দিন বাদী হয়ে নেছারাবাদ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রবিবার সকালে গ্রেপ্তারকৃতদের পিরোজপুর কোর্টে প্রেরণ করেছে।

নেছারাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান তালুকদার সাংবাদিকদের জানান, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে শিশু নির্যাতনকারী বাবা ও ছেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের শেষে আসামিদের পিরোজপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে।


Best bangla site

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *