মৃ’ত্যুর আগে শেষবারের মতো যা লিখে গেছেন সুশান্ত


সাফল্য জীবনকে কী’ দেয়? হয়ত অনেক কিছু, তবে তার জন্য হয়ত হারাতেও হয় অনেক৷ কেউ যতই সফল হোন না কেন,সাফল্য আসার সঙ্গে জীবনের চলার পথ যে মসৃণ হয় না, তা আরও একবার প্রমাণ করলেন সুশান্ত সিং রাজপুত৷

বলিউডে তিনি নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন৷ বেশ কিছু ছবি ব্লকবাস্টার হিট হয়েছিল৷ অ’ভিনেতা হিসেবে জনপ্রিয় হয়েছিলেন তিনি৷

নতুনদের দৌড়ে অন্যতম দাবিদার ছিলেন সুশান্ত৷ মাত্র ৩৪ বছরে নিজের মুম্বইয়ের ফ্ল্যাটে মৃ’ত্যু হল সুশান্ত সিং রাজপুতের৷ পু’লিশের প্রাথমিক অনুমান আত্মহ’ত্যা করেছেন তিনি৷

তিনি ভাবুক ছিলেন৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের মনের কথা লিখতেন সুশান্ত৷ কখনও কল্পবিজ্ঞান নিয়ে লিখতেন তিনি, কখনও আবার মহাজাগতিক বিষয় নিয়ে দেখা যেত তাঁর পোস্ট৷ এই বিষয়গুলো নিয়ে গভীরভাবে চিন্তা করতেন তিনি৷ শেষ যে ইনস্টাগ্রাম পোস্টটি ছিল তাঁর, তাতেও যেন কোথাও সেই গভীর চিন্তার ছাপ ফেলে গিয়েছে তিনি৷

জীবনের দ্বন্দ্বের কথা উঠে এসেছে তাতে৷ ২০০২-এ মাকে হারিয়েছিলেন সুশান্ত৷ সেই দুঃখ কিছুতেই ভুলতে পারেননি৷ শেষ পোস্টেও সেই মায়ের কথা বলেছেন অ’ভিনেতা৷

‘চোখের জলে আবছা হয়েছে অ’তীত, ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে মুখে ফুটছে হাসি, আর জীবন যেন এই ভবিষ্যৎ ও অ’তীতের দোলাচলে কাটছে…মা’ এই ছিল সুশান্তের শেষ ইনস্টাগ্রাম পোস্ট৷ তাঁর হতাশার চিকিৎসা চলছিল৷ মৃ’ত্যুর পর সুশান্তের ফ্ল্যাটে গিয়ে সেই সব চিকিৎসার কাগজ উ’দ্ধার করে পু’লিশ৷ তাঁদের প্রাথমিক অনুমান আত্মহ’ত্যা করেছেন অ’ভিনেতা৷


Best bangla site

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *