অন্তঃসত্ত্বা নারীকে পায়জামা’র ফিতা দিয়ে হ’ত্যা

ঢাকার আশুলিয়ার বাগানবাড়ী এলাকায় পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা নারী হনুফা বেগম (২৮) হ’ত্যার ‘মূল হোতা‘ খোরশেদ আলমকে (২৭) গ্রে’প্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যা’­ব)। আজ রোববার তাঁকে গ্রে’প্তার করা হয়।

রোববার রাজধানীর কারওয়ান বাজারের র‌্যা’­ব মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যা’­ব-১-এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাফী উল্লাহ বুলবুল।

র‌্যা’­ব অধিনায়ক বলেন, ‘ভিকটিম হনুফা বেগম ঢাকা জে’লার আশুলিয়া থা’নাধীন জিরাবো বাগানবাড়ী এলাকায় তাঁর ছোট ভাই রুহুল আমিনের বাড়ি দেখাশোনা করতো। ভিকটিমের ছোট ভাই রুহুল আমিন বিদেশে থাকেন। গত ২০ জুন সকাল অনুমান ১০টার সময় হনুফার বড় বোন তাঁর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তা বন্ধ পায়। পরবর্তী সময়ে ওই বাসার আরেক ভাড়াটিয়া ছাকিয়াকে তিনি ফোন দেন। ভাড়াটিয়া ছাকিয়া রুমে গিয়ে হনুফা বেগমের ম’রদেহ দেখতে পান।’

পরে এই হ’ত্যাকা’ণ্ডের ঘটনায় নি’হতের বড় ভাই মো. রনি (৩৬) বাদী হয়ে ঢাকা জে’লার আশুলিয়া থা’নায় একটি হ’ত্যা মা’মলা দায়ের করেন।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাফী উল্লাহ বুলবুল বলেন, পরবর্তী সময়ে গো’পন সংবাদ ও তথ্য প্রযু’ক্তির মাধ্যমে লক্ষীপুর জে’লার রামগতী থা’নাধীন চর আফজাল এলাকা থেকে আজ ভোরে মো. খোরশেদ আলমকে গ্রে’প্তার করা হয়। এ সময় ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন এবং স্বর্ণের চেইন ও কানের দুল উ’দ্ধার করা হয়। সে পেশায় একজন গার্মেন্টসকর্মী।

র‌্যা’­ব কর্মক’র্তা দাবি করেন, খোরশেদ আলম পেশায় গার্মেন্টসকর্মীর হলেও আড়ালে মূলত চু’রি, ছিনতাই, ডা’কাতিসহ বিভিন্ন অ’প’রাধের সঙ্গে জ’ড়িত ছিল। হানুফার কাছে বিল্ডিং মেরামত ও রং করার জন্য কিছু নগদ টাকা আছে বলে জানতে পারে।

র‌্যা’­ব অধিনায়ক বলেন, ২০ জুন সকাল আনুমানিক ৯টার সময় পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী আ’সামি ভিকটিমকে কৌশলে ফাঁকা একটি রুমে নিয়ে যায় এবং ভিকটিমকে তার নিজের পায়জামা’র ফিতা পেঁচিয়ে শ্বা’সরোধ করে হ’ত্যা করে তার কাছে থাকা নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়।’

The post অন্তঃসত্ত্বা নারীকে পায়জামা’র ফিতা দিয়ে হ’ত্যা appeared first on PksrNews.


Best bangla site

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *